About Us

The Modern world gives emphasize to the education. New new ideas are created in the field of education. Health services are provided by team work worldwide. For a rich health care a doctor is not enough.It needs  health workers, Paramedic nurses and laboratory expert .
আধুনিক বিশ্ব সব সময় সর্বাপেক্ষা গুরুত্ব দিয়ে আসছে শিক্ষাকে। শিক্ষার ক্ষেত্রে নতুন নতুন ধারনা সৃষ্টি হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয় সংঘবদ্ধ ভাবে বা Team work এর মাধ্যমে। উন্নত স্বাস্থসেবার জন্য শুধু একজন চিকিৎসকই যথেষ্ট নয়। এর জন্য স্বাস্থ্য কর্মী আবশ্যক। উক্ত স্বাস্থ্য কর্মীকে অন্য ভাষায় Paramedic বলা হয়। যেমনঃ Primary Health Care Provider (PHCP), Primary Care Paramedic, Nurse, Health Technologist, Ambulance Paramedic  ইত্যাদি নামে সারা বিশ্বে পরিচিত। Community Doctor / Paramedic এর প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব ইউরোপ, আমেরিকা, বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের প্রেক্ষাপটে অপরিসীম। বাংলাদেশের আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপটে ও অধিক জনসংখ্যার তুলনায় বর্তমানে কর্মরত Community Doctor /Paramedic এর সংখ্যা অতি নগণ্য। অধিকন্তু বর্তমানে কর্মরত প্যারামেডিকস এর অধিকাংশেরই কোন উন্নত প্রশিক্ষণ বা স্বাস্থ্য সেবার Team work এর গুণগত প্রায় নেই বললেই চলে। তাই দেশের সিংহভাগ মানুষ আজও সঠিক ও সুলভ চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত। এ কারণে একজন ডাক্তারকে অধিক সংখ্যাক রোগী দেখতে হয়, ডাক্তারদের ফি অত্যাধিক। নানা প্রতিকূলতার কারণে সরকারী বা বেসরকারী প্রর্যায়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত Community Doctor / Paramedic এর অভাব প্রকট। অথচ দেশের সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্যারামেডিকের প্রয়োজনীয় অস্বীকার করার উপায় নেই। বাংলাদেশ তথা দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার উন্নত ও গুণগত মানসম্মত প্যারামেডিকস তৈরীর প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব উপলব্ধি করে বিশ্বেস্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) এর দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের Human resources for health Gi Dr. Win may  বলেন, “Allied Health (Paramedic) personal were important but unrecognized Players in the field of health care in the WHO South East Asia Region. Allied Health (Paramedic) service & education had been a relatively neglected field in most of the countries of the region.. It has therefore, essential to asses the status of allied health education & service in the region in order to identify what would be effective strategies to strengthen allied health service which emphasis on improving the utilization of allied heath personal (Paramedic) as well as assuring the quality of allied health education’ www.who.org (http/who/libdoc.who.int/seoro/2000/SEA_HMD_212PH)

মর্নিংবার্ড প্যারামেডিক কলেজ কি এবং কেন?

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড অধিভূক্ত  দক্ষ যুগপোযোগী সাস্থ্য কর্মী তেরীর একটি আধুনিক চিকিৎসা শিক্ষা কেন্দ্র মর্নিংবার্ড প্যারামেডিক কলেজ, সিলেট । কলেজে M.B.B.S; M.Phil, Ph.D ডিগ্রীধারী অভিজ্ঞ ডাক্তারদের মাধ্যমে নিয়মিত ক্লাস নেওয়া হয় । বর্তমানে প্যাথলজি/নার্সিং এর উপর ৪ বৎসর মেয়াদী ডিপ্লোমা এবং কমিউনিটি ডাক্তার, প্যাথোলজী, নার্সিং, ডেন্টিষ্ট্রি ( দাঁতের রোগের শর্ট কোর্স)সার্টিফিকেট কোর্সের ব্যবস্থা রয়েছে । এসব কোর্স সম্পন্নের পর যোগ্যতা অনুসারে স্ব স্ব পেশায় দেশে কর্মসংস্থান এবং বিদেশেও প্রচুর কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে। এই শিক্ষা প্রতিষ্টানে এস. এস. সি / এইচ. এস. সি / দাখিল পরীক্ষার পর ভর্তি হয়ে ৪ বৎসর মনোযোগের সাথে অধ্যয়ন করে কর্মক্ষেত্রে বিপুল পরিমান অর্থ উপার্জন করা সম্ভব । শুধু তাই নয় বিদেশে যেয়েও এই সম্মানজনক কাজ বিরাট অংকের অর্থ উপার্যনের জন্য সহায়ক । বিদেশে সফলতা মাতৃভূমির জন্য  বিরাট এক অহংকার যা, B.A অথবা M.A পাশ করেও অনেক সময় সহজ নয়। সিলেট শহরের প্রান কেন্দ্র সুবিদ বাজারের আং গনি মার্কেট ( পিটিআইএর বিপরীতে) এর ২য় তলায় অবস্থিত একটি আধুনিক কলেজ “মর্নিংবার্ড প্যারামেডিক কলেজ” ।

কলেজ প্রতিষ্ঠার পেছনে যার অবদান

 মর্নিংবার্ড প্যারামেডিক কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল ডাঃ মখলিছউর রহমান শিক্ষা ব্যবস্থায় বিশেষ করে স্বাস্থ্য সেবা, কারিগরি ও বিজ্ঞান প্রযুক্তিতে পিছিয়ে পড়া সিলেটি জনগণের কথা চিন্তা করে সিলেটে একটি আধুনিক স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার অক্লান্ত পরিশ্রম করে ব্যয় বহুল এ প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠা করে সিলেটের ভবিষ্যৎ বংশধরদের জন্য স্বাস্থ্যসেবা খাতে এক মহৎ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। বিশিষ্ট সমাজকর্মী, চিকিৎসক, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ডাঃ মখলিছউর রহমান ১৯৮০ সালে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ থেকে এম,বি,বি,এস ২০০৭ সালে ঢাকা বারডেম হাসপাতাল থেকে ডায়াবেটিকস্ এর উপর সিসিডি কোর্স সম্পন্ন করেন এবং ২০০৯ সালে ডায়াবেটিকস্ মেডিসিনের উপর পি,এইচ,ডি ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে মর্নিংবার্ড প্যারামেডিক কলেজের অধ্যক্ষ ও সিলেট থেকে প্রকাশিত ‘‘দৈনিক দুনিয়া আখেরাত’’ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক হিসাবে দায়িত্বরত আছেন। প্যারামেডিক কলেজকে সিলেট বিভাগের জন্য একটি মডেল প্যারামেডিক কলেজ হিসাবে স্থাপন করে দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য দেশ-বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিতে এক স্বপ্ন-দ্রষ্টা ডাঃ মখলিছউর রহমান।

কাদের জন্য পেশাঃ

মানবতার কল্যাণে আগ্রহী কমপক্ষে এস. এস. সি. পাশ বা সমমান যে কেউ এই মহৎ পেশা্য় আসতে পারেন । গতানুগতিক শিক্ষার বাইরে নিজের জীবনকে গড়তে চান বা স্বাবলম্বি হতে চান অথবা বিদেশে গিয়ে অন্যদের মত হতাশায় না ভোগে সহজে কর্মক্ষেত্রের সুযোগ করে নিতে চান তাদের জন্য এটি একটি উত্তম পেশা।Save

Save

Save

Save

Save

Save

Save